ফিচার বাংলাদেশ অর্থনীতি সর্বশেষ মতামত

গ্যাসের দাম না বাড়ানোর দাবি পোশাক শিল্প মালিকদের

গ্যাসের দাম না বাড়ানোর দাবি পোশাক শিল্প মালিকদের

পোশাক শিল্পের গতি ত্বরাণ্বিত করতে আগামী দুই বছর অন্তত গ্যাসের দাম না বাড়ানোর দাবি জানিয়েছে এ খাত সংশ্লিষ্ট শিল্প মালিকরা। দাম বাড়ানোর আগে গ্যাস-বিদ্যুতের সঙ্কটের কারণে এ খাত যে লোকসানের মুখে পড়েছে, তার ক্ষতিপূরণও চেয়েছে তারা।

বুধবার বিজিএমইএ ভবনে যৌথ সংবাদ সম্মেলন করে বিজিএমইএ, বিটিএমএ ও বিকেএমইএ এ দাবি জানায়।

ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন বিজিএমইএ সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, বিটিএমএ সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকন, বিকেএমইএ’র ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মনসুর আহমেদ এতে বক্তব্য রাখেন।

সিদ্দিকুর বলেন, গনশুনানিতে শিল্পে গ্যাসের মূল্য বর্তমানে প্রতি ঘনফুট ৭ দশমিক ৭৬ টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ১৮ দশমিক ৪ টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে। প্রস্তাবনা অনুয়ায়ী গ্যাসের মুল্য বৃদ্ধি পারে ১৩২ শতাংশ। এতে শিল্পে উৎপাদান খরচ বৃদ্ধি পাবে প্রায় পাঁচ শতাংশ।

তিনি বলেন, আমরা মনে করি, এই প্রস্তাবনা শিল্পের প্রবৃদ্ধি ও বিকাশের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। এই মূল্যবৃদ্ধি বস্ত্র ও পোশাকখাতের জন্য ভয়াবহ বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে।

শ্রমিকদের মজুরি বেড়ে যাওয়ার কারণে পোশাক শিল্পে উৎপাদন খরচ এরই মধ্যে ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ বেড়ে গেছে বলে দাবি করেন বিজিএমইএ সভাপতি।

তিনি আরও বলেন, এর উপর যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে ২০১৪ থেকে ২০১৮ সালে পোশাকের দরপতন হয়েছে ৭ দশমিক ৪ শতাংশ এবং ইউরোপে দরপতন হয়েছে ৩ দশমিক ৬৮ শতাংশ।

‘তাই আমরা চাই, অন্তত দুই বছর শিল্পে গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি যেন না হয়। এমনিতেই শ্রমিকদের বেতন আমরা বাড়িয়েছি। সেটাই এখনও কাটিয়ে উঠতে পারিনি।’

এক প্রশ্নের জবাবে সিদ্দিকুর বলেন,গ্যাসের দাম বৃদ্ধিতে আমাদের কোনো আপত্তি নেই। তবে বিগত দিনে গ্যাস সরবরাহ না থাকায় যে লোকসান হয়েছে, তিতাসকে তার ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।

বিটিএমএ সভাপতি মোহাম্মদ আলী খোকন বলেন, প্রতি ১০ বছরের জন্য একটি শিল্প নীতি করা প্রয়োজন। কোন জিনিসের কেমন দাম বাড়ানো হবে, সেটা এ নীতিতে থাকবে। তাহলে প্রতিষ্ঠানগুলোও সে অনুয়ায়ী পরিকল্পনা সাজাতে পারবে।

বিকেএমইএর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মনসুর আহমেদ বলেন,পোশাক শিল্পকে ধ্বংস করার জন্য গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি করা হচ্ছে কি না, সেটা খতিয়ে দেখতে হবে।

Comments