বাংলাদেশ জীবন-শিল্প

পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ক ৩য় জাতীয় যুব সম্মেলন ২০১৮ উদ্বোধন

পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ক ৩য় জাতীয় যুব সম্মেলন ২০১৮ উদ্বোধন

পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ে সচেতনতা ও কর্মকান্ড অংশগ্রহণ বৃদ্ধির লক্ষ্যে যুব দুই দিনব্যাপী জাতীয় সম্মেলন Bangladesh 3rd National Youth Conference on Family Planning 2018 এর উদ্বোধন হয়েছে।

সিরাক-বাংলাদেশ ও International Youth Alliance for Family Planning (IYAFP) এর আয়োজনে রাজধানীর কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশনে মঙ্গলবার সকালে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের সচিব জি এম সালেহ উদ্দিন সম্মেলনের উদ্বোধন করেন।

সারা দেশ হতে আগত প্রায় তিন শতাধিক অংশগ্রহণকারীদের উদ্দেশ্যে সালেহ উদ্দিন বলেন, পরিবার পরিকল্পনা ইস্যুতে তরুণ-তরুণীদের অংশগ্রহণ খুব জরুরী।  তিনি বলেন, পরিবার পরিকল্পনা বলতে শুধুমাত্র জন্মনিয়ন্ত্রণ পরিকল্পনাকেই বুঝায় না। বরং পরিবারের পরিকল্পনা এবং সমাজের পরিকল্পনাকেও অন্তর্ভূক্ত করে।
তিনি আরো বলেন, তরুণদের অংশগ্রহণের ফলে ইতিমধ্যে বাংলাদেশে মাতৃমৃত্যু ও শিশু মৃত্যুহার কমে গেছে। যুবকদের হাত ধরে ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠন হয়েছে। এই যুবকদের হাত ধরেই পরিবার পরিকল্পনা ইস্যুতে বাংলাদেশ সকল লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে পারবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন। কনফারেন্স হতে প্রাপ্ত জ্ঞান ও অভিজ্ঞতা নিয়ে সমাজের নিজ নিজ জায়গায় তরুণরা কাজ করবে বলে প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন সালেহ উদ্দিন।

একই প্যানেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংখ্যা বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. এ কে এম নুরুন নবী বলেন, দেশের সামগ্রিক উন্নয়নের ক্ষেত্রে তরুণদের জন্য আমাদেরকে বিনিয়োগ করতে হবে।
তিনি বলেন, ‘পরিবার পরিকল্পনার বিষয়ে কথা বলতে আমরা লজ্জাবোধ করি। অথচ পরিবারের সকল ব্যবস্থাপনা হলো পরিবার পরিকল্পনার অংশ। তরুণদেরকে আওয়াজ তুলতে হবে তাদের অধিকারের জন্য। সকল সুবিধাগুলোকে কাজে লাগাতে হবে বলেও তরুণদেরকে আহ্ববান জানান তিনি।
উপস্থিত তরুণদের উদ্দেশ্যে তিনি আরো বলেন, দ্বিধা, দ্বন্দ, ভয়ের কিছু নেই। বিশ্ব তোমার। ইতিবাচক চিন্তা করে এগিয়ে যেতে হবে তোমাকে। অধিকারের বিষয়ে তরুণরা যেন মতামত প্রকাশ করতে পারে, সেজন্য সরকারকে জায়গা তৈরি করে দিতে হবে।

নেদারল্যান্ড দূতাবাসের ‘এসআরএইচআর-জেন্ডার’ বিষয়ক ফার্স্ট সেক্রেটারি ড. অ্যানি ভেস্টজেন্স বলেন, এই কনফারেন্স তরুণদের জন্য নতুন সুযোগ তৈরি হবে।
তিনি বলেন, তরুণদের জন্য তথ্যের প্রবেশাধিকার নিশ্চিত করতে হবে। তাদেরকে যৌন ও প্রজনন বিষয়ে শিক্ষা দিতে হবে। তাহলে তারা তাদের অধিকার বিষয়ে জানতে পারবে এবং এগিয়ে যেতে সহজ হবে।
ড. অ্যানি বলেন, নেদারল্যান্ডে স্কুল-হাইস্কুল লেভেলের শিক্ষার্থীদেরকে যৌন ও প্রজনন বিষয়ে শিক্ষা দেওয়া হয়। বাংলাদেশেও এ বিষয়ে কাজ করতে হবে। নেদারল্যান্ড দূতাবাস যুবকদের সম্পর্কিত সকল কর্মকান্ডে যুক্ত থাকবে বলেও জানান তিনি ।

ইউএনএফপিএ বাংলাদেশের পরিবার পরিকল্পনা বিশেষজ্ঞ ড. এএসএম হাসান বলেন, বাংলাদেশে যুবকদের নিয়ে পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ক সম্মেলন এটা তৃতীয়। ইউএনএফপিএর গুরুত্বপূর্ণ দিক হলো যুবকদের নিয়ে কাজ করা। সিরাক-বাংলাদেশও সে বিষয়ে কাজ করছে। এই কনফারেন্সের মাধ্যমে পরিবার পরিকল্পনা বিষয়ক কর্মকান্ডে যুবকদের অংশগ্রহণ বহুঅংশে বাড়বে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

দেশের বিভিন্ন প্রান্ত হতে আগত তরুণ-তরুণীর অংশগ্রহনে সিরাক-বাংলাদেশের নির্বাহী পরিচালক এস এম সৈকতের পরিচালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যুব বক্তা হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন তাসনিয়া আহমেদ।

এছাড়াও কনফারেন্সের পার্টনার ইউকে এইড, আইওয়াইএএফপি, আরটিএম ইন্টারন্যাশনাল, আরএইচআরএন এবং জেপাইগোর বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকতারা উপস্থিত ছিলেন।

 
 
 
Attachments area
 
 
 

Comments