ফিচার সর্বশেষ

পাকিস্তানের বিপক্ষে ধুঁকছে নিউজিল্যান্ড

পাকিস্তানের বিপক্ষে ধুঁকছে নিউজিল্যান্ড

বুধবার (২৬ জুন) বার্মিংহ্যামের এজবাস্টনে নিউজিল্যান্ডের মুখোমুখি হচ্ছে পাকিস্তান।টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে পাকিস্তানের বোলিংয়ে তোপের মুখে আছে নিউজিল্যান্ড। পাকিস্তানি বোলারদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে ৮৩ রানেই ৫ উইকেট হারিয়ে বসেছে কিউইরা।নিউজিল্যান্ডের সবচেয়ে বড় ব্যাটিংয়ের স্তম্ভ ও ভরসা অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনকে ঘূর্ণিজাদুতে বোকা বানিয়ে আউট করেন শাদাব খান। ফিরে যাওয়ার আগে ৪১ রান করেন উইলিয়ামসন।

প্রথম ওভারে বোলিংয়ে আসেন অভিজ্ঞ অলরাউন্ডার মোহাম্মাদ হাফিজ। অফস্পিনার মোহাম্মদ হাফিজকে বাউন্ডারি হাকিয়ে শুরু করে নিউজিল্যান্ড ওপেনার মার্টিন গাপটিল।ওভারের বাকি বলগুলো বেশ দেখেশুনেই কাটিয়ে দেন নিউজিল্যান্ডের দুই ওপেনার গাপটিল আর কলিন মুনরো।

ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে আক্রমণে আসেন মোহাম্মদ আমির। প্রথম বলেই উইকেট। আমিরের অফসাইডের বলটি শরীরের বাইরে থেকে ড্রাইভ করতে গিয়ে স্ট্যাম্পে টেনে আনেন গাপটিল, মাত্র ৫ রান করেই বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন কিউই ওপেনার।

শুরুতেই উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়া নিউজিল্যান্ড ধীর ব্যাটিংয়ে মনোনিবেশ করে। কিন্তু সপ্তম ওভারে এসে তারা হারিয়ে বসে আরেক ওপেনার মুনরোকেও। ১২ রান করে শাহীন আফ্রিদির দুর্দান্ত এক ডেলিভারিতে প্রথম স্লিপে ক্যাচ দেন তিনি।

নিজের পরের ওভারে আবারও আঘাত শাহীন আফ্রিদির। এবার তিনি পরাস্ত করেন কিউই ব্যাটিং স্তম্ভ রস টেলরকে (৩)। উইকেটের পেছনে ঝাঁপিয়ে পড়ে দুর্দান্ত এক ক্যাচ নেন সরফরাজ আহমেদ। এরপরে অধিনায়ককে সঙ্গ দিতে আসা ১ রান করা টম ল্যাথামকেও উইকেটের পিছনে সরফরাজের ক্যাচে পরিণত করে প্যাভিলিয়নে ফেরৎ পাঠান আগুনে বোলিং করা শাহিন শাহ আফ্রিদি।

এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ২৭ ওভার শেষে নিউজিল্যান্ডের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৮৪ রান। কলিন ডি গ্রান্ডহোম ০১ আর জিমি নিশাম ১৯ রান নিয়ে ক্রিজে আছেন।

এর আগে আউটফিল্ড ভেজা থাকায় নির্ধারিত সময়ের টসও পিছিয়ে গেছে। আজকের এ ম্যাচে নিউজিল্যান্ডের জয়ের প্রত্যাশায় কোটি টাইগার ভক্ত।

পাকিস্তানের একাদশ : ফাখর জামান, ইমাম-উল-হোক, বাবর আজম, মোহাম্মদ হাফিজ, হারিস সোহেল, সরফরাজ আহমেদ (উইকেটরক্ষক ও অধিনায়ক), ইমাদ ওয়াসিম, ওয়াহাব রিয়াজ, শাদাব খান, মোহাম্মদ আমির, শাহিন আফ্রিদি।

নিউজিল্যান্ডের একাদশ : মার্টিন গাপটিল, কলিন মুনরো, কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), রস টেলর, টম লাথাম (উইকেটরক্ষক), জেমস নিশাম, কলিন ডি গ্র্যান্ডহোম, মিচেল স্যান্টনার, ট্রেন্ট বোল্ট, ম্যাট হেনরি, লোকি ফারগুসন।

Comments