ফিচার বাংলাদেশ সর্বশেষ শিক্ষা চাকরির বাজার

প্রাথমিকের সহকারীদের ১১তম গ্রেড দ্রুত কার্যকর চাই

প্রাথমিকের সহকারীদের ১১তম গ্রেড দ্রুত কার্যকর চাই

একটি সুন্দর বীজ থেকেই ভাল ফল পাওয়া যায়। বীজ ঠিকমত অঙ্কুরিত না হলে ভাল ফসল আশা করা নির্বোধের কাজ। একটি শিশু ভূমিষ্ঠ হওয়ার পর মা-বাবার পরম আদরে বড় হতে হয়। শিশুটির লেখাপড়ার হাতেখড়ি মায়ের হাতেই। কিন্তু আসল ধাপ শুরু হয় প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। এখানেই জীবন গড়ার স্বপ্নের বীজ রোপন করা হয়। এই বীজের গড়ে উঠার মূল কারিগর শিক্ষক।

পরম যতনে একেকটা শিশুকে হাতে কলমে শিক্ষা দিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে নেয় একজন শিক্ষক। বাচ্চাদের শতবার চেঁচামেচি, হাজারো বায়না, বিচার বিচার খেলা প্রভৃতি পাড়ি দিয়ে একজন দক্ষ কারিগরের মত পুতুলের মত নিষ্পাপ শিশুটিকে মানুষ করার দায়িত্ব একজন শিক্ষকের। কিন্তু শিক্ষককে ধরা হয়েছে তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী। পৃথিবীর উন্নত ও স্বল্প উন্নত দেশগুলোর দিকে তাকালে দেখা যায় শিক্ষকদের ভিআইপি মর্যাদা ও সর্বোচ্চ বেতন দেওয়া হয়। অথচ আমার সোনার বাংলায় একজন শিক্ষককে বেঁচে থাকতে হয় অবহেলা ও করুণার পাত্র হয়ে। কেননা একজন দেশ গড়ার কারিগরের বেতন গ্রেড ১৫। প্রধান শিক্ষকদের পরের গ্রেডে বেতন দাবিতে সহকারী শিক্ষকবৃন্দ আন্দোলন করে আসছে।

সম্প্রতি প্রধান শিক্ষককে ১০ম গ্রেড প্রদানের জন্য আদালত রায় দিয়েছেন। এটি অবশ্যই প্রশংসার দাবীদার। কেননা এটি প্রধান শিক্ষকদের ন্যায্য পাওনা। সেইসাথে সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেডের দাবিও যৌক্তিক। সাবেক প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রী ১১তম গ্রেড প্রদানের আশ্বাসে আন্দোলনরত শিক্ষকদের অনশন ভেঙেছিলেন যা আজও আশার আলো দেখেনি। সর্বশেষ জাতীয় নির্বাচনের ইশতেহারে বেতন-বৈষম্যের নিরসনের কথা উল্লেখ থাকায় শিক্ষকদের চোখে তৃপ্তির ঢেঁকুর ছিল। তৈারা আবারো আশায় বুক বেঁধেছেন। সম্প্রতি সরকারের উচ্চমহল সহকারী প্রধান শিক্ষক পদ সৃষ্টির কথা বলছেন যা কোনো সুফল বয়ে আনবে বলে মনে হয় না। নিম্ন মাধ্যমিকে যেখানে সহকারী প্রধান শিক্ষক পদ প্রয়োজন হয় না সেখানে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কতটুকু প্রয়োজন!

২০১৩ সালের ২৬,০০০ প্রাথমিক বিদ্যালয় ও অনেক পুরাতন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এখনও দপ্তরী কাম প্রহরী নিয়োগ দেওয়া হয়নি। এদিকে নজর দেওয়া প্রয়োজন। মাননীয় গণশিক্ষামন্ত্রী দায়িত্ব পেয়েই সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেড যৌক্তিক বলে মেনে নিয়েছেন। আশা করি সহকারী শিক্ষকদের ১১তম গ্রেডের আশা অচিরেই পূরণ হবে।

Comments