ফিচার বাংলাদেশ সর্বশেষ তথ্য-প্রযুক্তি মতামত

ফরিদপুরে নানা আয়োজনে পল্লীকবি'র ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

ফরিদপুরে নানা আয়োজনে পল্লীকবি'র ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

নানা আয়োজনের মধ্যে দিয়ে ফরিদপুরে পল্লীকবি জসীমউদ্‌দীন এর ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে।  আজ বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সদর উপজেলার অম্বিকাপুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামের পল্লীকবির কবরে জেলা প্রশাসন, জসীম ফাউন্ডেশন, সরকারি ইয়াছিন কলেজ, ফরিদপুর সাহিত্য পরিষদ, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, আনছারউদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়সহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের পক্ষ থেকে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

এ ছাড়া ফরিদপুর ৩ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশারফ হোসেনের পক্ষেও কবির কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানানো হয়।

পুস্পমাল্য অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা জানানোর পর কবির বাড়ির আঙিনায় জেলা প্রশাসন ও জসীম ফাউন্ডেশন যৌথ উদ্যোগে আলোচনাসভা ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করে। 

আলোচনাসভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন ফরিদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রোকসানা রহমান, কবিপুত্র ড. জামাল আনোয়ার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. জামাল পাশা, অধ্যাপক রেজভী জামান প্রমুখ। 

বক্তারা বলেন, পল্লীকবি ছিলেন মাটি ও মানুষের কবি। তাঁর লেখনির ছত্রে ছত্রে দেশ ও মানুষের প্রতি তাঁর অকৃত্রিম ভালোবাসা প্রকাশ পেয়েছে। তাঁরা বলেন, বাংলা সাহিত্যের অন্যতম জনপ্রিয় ও শক্তিশালী এ কবির লেখা উপন্যাস বেদের মেয়ে, সোজনবাদিয়ার ঘাট, নকশীকাঁথার মাঠসহ কবর, নিমন্ত্রণ ও আসমানী কবিতা আজও পাঠকের মনে তীব্রভাবে নাড়া দেয়।

উল্লেখ্য, ১৯৭৬ সালের ১৪ মার্চ তিনি ঢাকায় মারা যান। পরে তাঁকে ফরিদপুর সদর উপজেলার অম্বিকাপুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর পৈতৃক বাড়ির তাঁর প্রিয় ডালিম গাছের তলায় দাফন করা হয়।

Comments