ফিচার বাংলাদেশ অর্থনীতি সর্বশেষ আইন-আদালত

বনবিভাগের ছাড়পত্র ছাড়াই চলছে অসংখ ‘স’ মিল

বনবিভাগের ছাড়পত্র ছাড়াই চলছে অসংখ ‘স’ মিল

নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলা বন বিভাগের ছাড়পত্র ছাড়াই অবাধে চলছে অসংখ ‘স’ মিল। নেই প্রশাসনিক কোন ব্যবস্থা। বনবিভাগের কর্মকর্তাকে খুশি করতে পারলে প্রয়োজন নেই কোন কাগজপত্রের- এমন দাবি ‘স’ মিল মালিকদের।

উপজেলার বাকলজোড়া ইউনিয়নের গুজিরকোনা বাজারে ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয় ঘেষে গড়ে উঠেছে এই ‘স’ মিল। ঐ মিলের মালিক পার্শ্বের গ্রামের তাজ উদ্দিনের পুত্র গোলাপ জহর। পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয় ও সংশ্লিষ্ট অধিদপ্তরের নীতিমালাকে সম্পূর্ণভাবে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে গুজিরকোনা বাজারে স-মিল চালাচ্ছে দেদারছে।

গুজিরকোনা বাজারের ব্যবসায়ী মহল স্বাক্ষরিত একটি লিখিত অভিযোগ গত বছরের জুন মাসের ২১ তারিখ পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবরে স-মিলটি বন্ধের দাবিতে সংশ্লিষ্ট দপ্তরের বেশ কটি বিভাগে অভিযোগ দাখিল করেন এলাকাবাসী। তদানীন্তন উপজেলা নির্বাহী অফিসার কর্তৃক তদন্ত পূর্বক ঐ স-মিলের কাজ সম্পূর্ণভাবে বন্ধ করে দেন।

স্থানীয় প্রভাবশালীদের দাপটে ও রেঞ্জ কর্মকর্তা মোঃ সায়েদুল ইসলাম ইসলামের পরোক্ষ যোগসাজসে অবৈধ উপায়ে ‘স’ মিলটি চালিয়ে আসছেন গোলাপ জহর। এ বিষয়ে ‘স’ মিল মালিক গোলাপ জহরের সাথে কথা বললে তিনি বলেন, আমি লাইসেন্স এর জন্যে বন বিভাগে কাগজপত্র জমা দিয়েছি।

দুর্গাপুর বন বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা মোঃ সায়েদুল ইসলাম বলেন গত ৩ মার্চ আমি সরেজমিনে গিয়ে ‘স’ মিলটি বন্ধের জন্যে নির্দেশ দিয়েছি। নির্দেশ না মানলে নিয়মিত মামলা করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ তোফায়েল আহমেদ বলেন, অবৈধ স-মিল চালানোর খবর আমার কাছে আছে। একটু সময় করে এদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করবো।

Comments