ফিচার বাংলাদেশ সর্বশেষ আইন-আদালত

ভুয়া অডিটর ও সাংবাদিকসহ গ্রেফতার ৮

ভুয়া অডিটর ও সাংবাদিকসহ গ্রেফতার ৮

গাইবান্ধায় পরিবার পরিকল্পনা ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পরিদর্শক (অডিট ও ডিউটি) ইন্সপেক্টর ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার সেজে প্রতারণার অভিযোগে সাত ভুয়া কর্মকর্তাসহ এক সাংবাদিককে গ্রেপ্তার করেছে গাইবান্ধা পুলিশ।

রবিবার দুপুরে সদর উপজেলার বাদিয়াখালী ইউনিয়নের চকবরুল কমিউনিটি ক্লিনিক থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে কিছু ভুয়া কাগজপত্র ও পরিচয়পত্র জব্দ করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে রোববার রাতে সাংবাদিকদের সদর থানার পুলিশ ওসি খান মো শাহরিয়ার জানান, রোববার দুপুরের দিকে ওই আটজন ব্যক্তি বাদিয়াখালী উপস্বাস্থ্য কেন্দ্রে গিয়ে উপসহকারী কমিউনিটি মেডিকেল অফিসার নজরুল ইসলামকে ভয়ভীতি দেখান ও টাকা দাবি করেন। তারা নিজেদের সরকারি কর্মচারী ও দুই নারী মেডিকেল অফিসার বলে পরিচয় দেন।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন সদর উপজেলার বাদিয়াখালী ইউনিয়নের ছাট চকবরুল গ্রামের সুকুমার চন্দ্র শীলের ছেলে সঞ্জয় চন্দ্র শীল (২৬), বোয়ালী ইউনিয়নের পিয়ারাপুর গ্রামের রবিউল ইসলামের ছেলে আতিকুর রহমান (৩৫), রামচন্দ্রপুর ইউনিয়নের কিশামত গোপালপুর গ্রামের শফিকুল ইসলামের স্ত্রী কাকলি খাতুন (২৪), গাইবান্ধা পৌরসভার দক্ষিণ ধানঘড়া এলাকার চান মিয়ার ছেলে রায়হান সরকার (২৫), সাঘাটা উপজেলার ভরতখালী ইউনিয়নের গটিয়া গ্রামের আব্দুল মান্নান তালুকদারের ছেলে সারোয়ার হোসেন (২৫), পলাশবাড়ী উপজেলার হরিনাথপুর ইউনিয়নের তালুকজামিরা গ্রামের জহুরুল ইসলামের ছেলে রুবেল মিয়া (২১), পবনাপুর ইউনিয়নের ফকিরহাট গ্রামের লিমন মিয়ার স্ত্রী মুর্শিদা আক্তার রুমি (২৩) ও গাইবান্ধা পৌরসভার ব্রীজরোড কালিবাড়ী পাড়ার নারু গোপাল দাসের ছেলে সাংবাদিক তপন চন্দ্র দাস (৩৬)। তপন চন্দ্র দাস স্থানীয় ও অনলাইন নিউজ পোর্টালের প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছেন।

এ ব্যাপারে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (বি সার্কেল) মইনুল হক জানান, গ্রেপ্তারকৃতদের ব্যাপারে বিস্তারিত খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে। জব্দকৃত কাগজপত্র পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও সত্যতা যাচাইয়ের কাজ চলছে। এ ব্যাপারে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার প্রক্রিয়া চলছে।

Comments