ফিচার বাংলাদেশ সর্বশেষ

মাদ্রাসাছাত্রীর হত্যাচেষ্টায় জড়িতদের বিচার হবেই: শিক্ষামন্ত্রী

মাদ্রাসাছাত্রীর হত্যাচেষ্টায় জড়িতদের বিচার হবেই: শিক্ষামন্ত্রী

ফেনীতে মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহানকে (১৮) যারা পুড়িয়ে হত্যার চেষ্টা করছে তাদের বিচার হবেই বলে তার স্বজনদের আশ্বস্ত করেছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

রোববার রাত ৮টা ২০ মিনিটে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে নুসরাত জাহানকে দেখতে যান শিক্ষামন্ত্রী। এ সময় তিনি শিক্ষার্থীর চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন এবং স্বজনদের সঙ্গে কথা বলেন। নুসরাতকে দেখে হাসপাতাল ছাড়ার সময় সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘নুসরাত জাহানের অবস্থা আশঙ্কাজনক, ঘটনাটি অত্যন্ত দুঃখজনক।’

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘যথাযথ তদন্ত সাপেক্ষে দোষীদের বিচার করা হবে।’

দীপু মনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শিক্ষার্থীর চিকিৎসার ব্যয়ভার বহন করার ঘোষণা দিয়েছেন। ইতোমধ্যে অধ্যক্ষ গ্রেপ্তার হয়েছে। অন্য জড়িতদের আইনের আওতায় আনার চেষ্টা চলছে।’

নুসরাতের পরিবারের সদস্যদের সান্ত্বনা দিয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘ধৈর্য ধরুন, কোনো অপরাধী ছাড়া পাবে না। এ মুহূর্তে সবচেয়ে বড় বিষয় তার চিকিৎসা। সরকার এটা গুরুত্ব সহকারে দেখছে।’

প্রসঙ্গত, শনিবার (৬ এপ্রিল) সকালে আলিম পরীক্ষা দিতে সোনাগাজী ইসলামিয়া সিনিয়র ফাজিল মাদ্রাসা যান নুসরাত জাহান রাফি নামে ওই ছাত্রী। মাদ্রাসার এক ছাত্রী তার বান্ধবী নিশাতকে ছাদের উপর কেউ মারধর করছে- এমন সংবাদ দিলে রাফি ওই বিল্ডিংয়ের চার তলায় যান।

সেখানে মুখোশ পরা চার-পাঁচ ছাত্রী তাকে অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলার বিরুদ্ধে মামলা ও অভিযোগ তুলে নিতে চাপ দেয়। রাফি অস্বীকৃতি জানালে তারা তার গায়ে আগুন দিয়ে পালিয়ে যায়।

এর আগে গত ২৭ এপ্রিল ওই ছাত্রীকে নিজ কক্ষে নিয়ে শ্লীলতাহানির অভিযোগে মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলাকে আটক করে পুলিশ। ওই ঘটনার পর থেকে তিনি কারাগারে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা শিরিন আক্তার বাদী হয়ে সোনাগাজী মডেল থানায় মামলা করেন।

এদিকে এ ঘটনায় রোববার থেকে আগামী ১৭ এপ্রিল পর্যন্ত মাদ্রাসার স্বাভাবিক কার্যক্রম ও অনির্দিষ্টকালের জন্য হোস্টেল বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ।

Comments