ফিচার বাংলাদেশ রাজনীতি সর্বশেষ আইন-আদালত

মাসুদ আজহারকে জঙ্গি ঘোষণায় ফের বাধা চীন

মাসুদ আজহারকে জঙ্গি ঘোষণায় ফের বাধা চীন

পুলওয়ামা হামলায় জড়িত জইশ-ই-মোহাম্মদ প্রধান মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক জঙ্গি তকমা দেওয়ার প্রক্রিয়ায় ফের ভেটো দিয়েছে চীন। বুধবার জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে এমন অবস্থান নিয়েছে বেইজিং৷

কূটনৈতিক মহলের ধারণা, চীনের হাতে ভেটো দেওয়ার ক্ষমতা যত দিন থাকবে, ততদিন মাসুদকে ওই তালিকায় ঢোকানো যাবে না।

সম্প্রতি জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় ভারতীয় সেনা কনভয়ে হামলার ঘটনায় উঠে এসেছে মাসুদ আজহারের নাম। এরপর থেকে পাকিস্তানে বসবাসকারী এই ব্যক্তিকে আন্তর্জাতিক জঙ্গি তালিকাভুক্ত করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে নয়াদিল্লি।

বুধবার এ নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদে প্রস্তাব গ্রহণের উদ্যোগে ভারতের পাশে ছিলো আমেরিকা, ফ্রান্স, রাশিয়া, ব্রিটেনসহ পরিষদের বিভিন্ন সদস্য রাষ্ট্র। কিন্তু ফের চীনের বাধার মুখে আটকে গেল সেই উদ্যোগ। এ ঘটনায় হতাশা ব্যক্ত করেছে ভারত।

মাসুদ আজহারকে নিষিদ্ধ তালিকায় আনার নয়াদিল্লির এই চেষ্টা এবারই প্রথম নয়। গত দশ বছর ধরেই ভারত সরকার বিষয়টি নিয়ে আসছে নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য রাষ্ট্রগুলির কাছে দেন দরবার করে আসছে। বেজিংয়ের আপত্তির কারণে প্রত্যেক বারই তাদের সে চেষ্টা ভেস্তে গেছে।

বুধবার এ প্রস্তাবে আপত্তি জানানোর সময়সীমা শেষ হওয়ার এক ঘণ্টা আগে চীন জানায়, এই প্রস্তাব বিবেচনা করতে তাদের আরও সময় প্রয়োজন। এ নিয়ে চারবার এই উদ্যোগ আটকে দিল বেইজিং।

এ নিয়ে হতাশা ব্যক্ত করে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, ‘আমরা হতাশ। এর ফলে জম্মু-কাশ্মীরের সাম্প্রতিক হামলার প্রেক্ষিতে মাসুদের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক স্তরে পদক্ষেপ নেয়ার পথ বন্ধ হয়ে গেল।’

আজহারকে নিষিদ্ধ জঙ্গি হিসেবে ঘোষণা করতে পারলে কৌশলগত এবং ঘরোয়া রাজনৈতিক ক্ষেত্র-দুই দিকেই লাভ হত মোদি সরকারের। পাকিস্তানের উপরে যে চাপ তৈরিতেও এগিয়ে থাকত ভারত। একইসঙ্গে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের প্রচারে বিজেপি ঢেউ তুলতে পারত এই ‘কৃতিত্ব’-কে সামনে রেখে।

সরকারের এই প্রচেষ্টা ব্যর্থ হওয়ায় বিরোধী দল কংগ্রেস নেতা রণদীপ সুরজেওয়ালা বলেন, ‘মোদি সরকারের বিদেশনীতি একের পর এক বিপর্যয় হচ্ছে।’

বিশেষজ্ঞদের মতে, চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডরটি যে এলাকার উপর দিয়ে গিয়েছে সেখানে মাসুদের দল জইশ-ই মোহাম্মদের প্রবল দাপট। ফলে মাসুদের বিরোধিতায় যেতে চায় না বেইজিং।

সূত্র: আনন্দবাজার

Comments