ফিচার বাংলাদেশ সর্বশেষ

শপথ নিলেন নতুন মন্ত্রিরা

শপথ নিলেন নতুন মন্ত্রিরা

সোমবার (০৭ জানুয়ারি) বিকেল ৩টা ৫০ মিনিটের সময় বঙ্গভবনের দরবার হলে মন্ত্রীদেরকে শপথ পড়ান রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ।

মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ এ শপথ অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নতুন মন্ত্রিসভা হচ্ছে ৪৬ সদস্য বিশিষ্ট। এদের মধ্যে পূর্ণমন্ত্রী হচ্ছেন ২৪ জন, প্রতিমন্ত্রী ১৯ জন ও উপমন্ত্রী হবেন ৩ জন। রোববার (০৬ জানুয়ারি) নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের দফতরও বণ্টনসহ তালিকা প্রকাশ করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

মন্ত্রিসভার পূর্ণ মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন ২৪ জন-

নোয়াখালী-৩ আসনের সাংসদ ওবায়দুল কাদের (সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়), ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ আসনের সাংসদ আনিসুল হক (আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়), কুমিল্লা-১০ আসনের সাংসদ আ হ ম মুস্তফা কামাল (অর্থ মন্ত্রণালয়), টাঙ্গাইল-১ আসনের সাংসদ ড. আবদুর রাজ্জাক (কৃষি মন্ত্রণালয়), ঢাকা-১২ আসনের সাংসদ আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল (স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়), গাজীপুর-১ আসনের সাংসদ আ ক ম মোজাম্মেল হক (মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়), চট্টগ্রাম-৭ আসনের সাংসদ ড. হাছান মাহমুদ (তথ্য মন্ত্রণালয়), কুমিল্লা-৯ আসনের সাংসদ মো. তাজুল ইসলাম (স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়), চাঁদপুর-৩ আসনের সাংসদ ডা. দীপু মনি (শিক্ষা মন্ত্রণালয়), সিলেট-১ আসনের সাংসদ এ কে আবদুল মোমেন (পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়), সুনামগঞ্জ-৩ আসনের সাংসদ এম এ মান্নান (পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়), নরসিংদী-৪ আসনের সাংসদ নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন (শিল্প মন্ত্রণালয়), নারায়ণগঞ্জ-১ আসনের সাংসদ গোলাম দস্তগীর গাজী (বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়), মানিকগঞ্জ-৩ আসনের সাংসদ জাহিদ মালেক (স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়), নওগাঁ-১ আসনের সাংসদ সাধন চন্দ্র মজুমদার (খাদ্য মন্ত্রণালয়), রংপুর-৪ আসনের সাংসদ টিপু মুনশি (বাণিজ্য মন্ত্রণালয়), লালমনিরহাট-২ আসনের সাংসদ নুরুজ্জামান আহমেদ (সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়), পিরোজপুর-১ আসনের সাংসদ শ. ম. রেজাউল করিম (গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়), মৌলভীবাজার-১ আসনের সাংসদ মো. শাহাব উদ্দিন (পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়), বান্দরবানের সাংসদ বীর বাহাদুর উ শৈ সিং (পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়), চট্টগ্রাম-১৩ আসনের সাংসদ সাইফুজ্জামান চৌধুরী (ভূমি মন্ত্রণালয়), পঞ্চগড়-২ আসনের সাংসদ মো. নুরুল ইসলাম সুজন (রেলপথ মন্ত্রণালয়) এবং টেকনোক্র্যাট কোটায় স্থপতি ইয়াফেস ওসমান (বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়) ও মোস্তাফা জব্বারের (ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়)।

Comments